| |

সিলেটে প্রথমবারের মত আন্তর্জাতিক ম্যাচ, বিক্রি শুরুর এক ঘন্টায় টিকিট শেষ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথমবার খেলতে নামছে বাংলাদেশ জাতীয় দল। আগামীকাল রোববার বিকাল ৫টায় বাংলাদেশ-শ্রীলংকা মধ্যকার দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষটি হবে। এর মাধ্যমেই ২০১৪ সালে পর্দা ওঠা স্টেডিয়ামটি পূর্ণতা পেতে যাচ্ছে।

 

বাংলাদেশের জার্সি গায়ে টাইগারদের প্রথমবার দেখবে সিলেটবাসি। তাই সবাই নেমেছেন টিকিট সংগ্রহের যুদ্ধে। তবে সেই যুদ্ধে নেমে হতাশ হয়েছেন বেশিরভাগ দর্শকই। টিকিট ছাড়ার প্রথম ঘণ্টায়তেই যে শেষ হয়ে গেছে সব ‘সোনার হরিণ’।

 

ক্রিকেটের প্রতি প্রেমের বহিঃপ্রকাশ অতীতেও দেখিয়েছেন সিলেটের মানুষ। ইতিপূর্বে এই মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পুরুষ ইভেন্টের গ্রুপ পর্ব, মহিলা ইভেন্টের ফাইনাল ও সেমিফাইনাল বাদে বাকি সব ম্যাচ, বিজয় দিবস টি-টোয়েন্টি ও বিপিএলের মতো আসর। এছাড়া এনসিএল ও বিসিএলের ম্যাচও অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে নিয়মিত। দর্শকরা সবসময়ই মাঠে উপস্থিত থেকে চঞ্চল রাখছেন স্টেডিয়ামটিকে।

 

এবার যখন জাতীয় দলের খেলা, সিলেটে ক্রিকেট উন্মাদনাটা যেন একটু বেশিই। কাছ থেকে তামিম-মুশফিক-রিয়াদদের দেখার রোমাঞ্চ সামলে ইতোমধ্যে সবাই নেমেছেন টিকিট সংগ্রহের যুদ্ধে। আর তাই টিকিট ছাড়ার প্রথম ঘণ্টায়তেই তা শেষ হয়ে যায়।

 

সিরিজের একমাত্র যে ম্যাচটি সিলেটে অনুষ্ঠিত হচ্ছে, তার কোনো টিকিটই বিক্রি করা হবে না বুথে। এটি আগেই জানিয়েছিল কর্তৃপক্ষ।

 

সিলেট ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল জানান, ‘সিলেটে আয়োজিত দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচের কোনো টিকিট বুথে বিক্রি হবে না। টিকিট পাওয়া যাবে অনলাইনে সহজ ডট কমের মাধ্যামে। সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের দর্শকধারণ ক্ষমতা ১৮ হাজার হলেও অনলাইনে ১৭ হাজারের মত টিকিট বিক্রি করা হবে।’

 

১৬ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত বারোটায় ঐ ১৭ হাজার টিকিট অনলাইনে ছাড়া হয়। টিকিট ছাড়ার এক ঘণ্টার মধ্যেই অবিশ্বাস্যভাবে শেষ হয়ে যায় ম্যাচের সব টিকিট। এক ঘণ্টা পর যারাই টিকিট কাটার চেষ্টা করেছেন, নিরাশ হতে হয়েছে সবাইকেই। এ নিয়ে সিলেটের দর্শকদের মনে বিরাজ করছে চাপা ক্ষোভ।

 

উল্লেখ্য, ১৮ ফেব্রুয়ারি (রোববার) বিকেল পাঁচটায় সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে স্বাগতিক বাংলাদেশ ও সফরকারী শ্রীলঙ্কা। প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের দলীয় রেকর্ড রান করেও বোলিং ব্যর্থতার কারণে বাজেভাবে হারতে হয় সফরকারীদের কাছে।