| |

ফরমালিনযুক্ত আম কতটা ভয়াবহ হতে পারে ভেবেছেন কি ?

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ আমের নাম শুনেই জিভে জল আসে না এমন বাঙালির দেখা পাওয়া কঠিন। কেউ মেপে খায়। কেউ পেলেই খায়। কিন্তু যত খুশি খাওয়া কি ঠিক?

আম পুরুষ না নারী তা জানা নেই, তবে ফলের রাজা। রাজা বলা হয়, শুধু স্বাদের গুণে নয়, অন্য গুণের জন্যেও। শুধু স্বাদ নয়, উপকারেও কোনও ফলের থেকে কম যায় না আম। আর আমের মতো এত প্রজাতি অন্য ফলে কম দেখা যায়। প্রত্যেক প্রকার আমের আবার আলাদা আলাদা স্বাদ, গন্ধ।

কাঁচা আম এমনি কিংবা রান্না করে খেতে যেমন মজা, তেমনই মধুময় পাকা আমও। এমন রসাল ফল যে তার আর এক নাম ‘রসাল’। তবে মধুময় ফলটি শুধু স্বাদে নয় গুনেও অনন্য। দেখে নেওয়া যাক এমন সুস্বাদু ফলের গুণাবলী—

* আমের মধ্যে আছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে। স্তন, লিউকেমিয়া, কোলন সহ প্রোস্টেট ক্যান্সারকেও প্রতিরোধে সহায়তা করে আম। এতে প্রচুর পরিমাণে এনজাইমও থাকে।

* আম খেলে কোলেস্টোরল কমে যায়। আমে রয়েছে উচ্চ পরিমানে ভিটামিন সি, সেই সঙ্গে ফাইবার। রক্তে উপস্থিত খারাপ কোলেস্টরল-এর মাত্রা কমাতে সাহায্য করে।

* ত্বকের যত্নেও অনেক উপকারি এই ফলটি। ভিতর ও বাইরে থেকে ত্বককে সুন্দর রাখতে সাহায্য করে। ত্বকের রোমের গোড়া পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে আম।

* আম চোখের জন্যও উপকারী। মানুষের শরীরে প্রয়োজনীয় ভিটামিন ‘এ’-এর চাহিদার প্রায় পঁচিশ শতাংশের যোগান দিতে পারে। ভিটামিন এ চোখের জন্য খুবই উপকারী। দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি এবং রাতকানা রোগ থেকে রক্ষা করে।

* আমে পাওয়া যায় টারটারিক অ্যাসিড, ম্যালিক অ্যাসিড ও সাইট্রিক অ্যাসিড যা শরীরে অ্যালকালাই বা ক্ষার ধরে রাখতে সহায়তা করে।

* আমে রয়েছে এনজাইম, যা শরীরের প্রোটিন অণুগুলো ভেঙে ফেলতে সাহায্য করে এবং হজমশক্তি বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

* এছাড়াও আমে রয়েছে প্রায় ২৫ রকমের বিভিন্ন কেরাটিনোইডস যা আপনার ইমিউন সিস্টেমকে রাখবে সুস্থ ও সবল।

আম অনেক উপকারী। কিন্তু বেশি খাওয়া কি ভাল?
আম কাঁচাই হোক বা পাকা কোনওটাই মাত্রাতিরিক্ত খাওয়া ভাল নয়। বিশেষ করে ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রে আম খেলে সুগার বেড়ে যাওয়ার প্রবণতা দেখা দেয়। চিকিৎসকরা বলেন, প্রতিদিন অল্প আম খাওয়া যেমন উপকারী তেমনই এক সঙ্গে অনেক আম খাওয়া বিপদ ডেকে আনতে পারে। স্বাদ আস্বাদন করতে হবে বুঝে শুনে। না হলে ভালর থেকে ক্ষতির সম্ভাবনাই বেশি। অনেক সময়ে হজমের সমস্যাও তৈরি করে। আবার এটা ভুলে গেলে চলবে না বেশি আম খেলে দ্রুত ওজন বাড়ে।